বিতর্কের রানী সিমলা-সানাই?

বিতর্কের দুই রানীর নাম সিমলা ও সানাই। সিমলা বিতর্কে পড়েছেন স্বামী বিমান ছিনতাই করতে গিয়ে মৃত্যু হয়ে। আর সানাই  বিতর্কে পড়েছেন মন্ত্রীর সঙ্গে বাগদানে ঘোষণা দিয়ে।

বাংলাদেশ বিমানের একটি উড়োজাহাজ ছিনতাইচেষ্টার পর কমান্ডো অভিযানে নিহত মো. পলাশ আহমেদ ও চিত্রনায়িকা সিমলাকে নিয়ে যে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে এর জন্য এক ভিডিও বার্তা দিয়েছেন সিমলা।

২৪ ফেব্রুয়ারি বিমান ছিনতাইচেষ্টার ঘটনায় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে পলাশ ও সিমলার বিয়ের বিষয়টি সামনে আসে। এর ব্যাখা দিতেই ভিডিও বার্তা দেন নায়িকা সিমলা।

ভিডিও বার্তায় সিমলা বলেন, ২০১৭ সালের ১২ সেপ্টেম্বর তার সঙ্গে পরিচয় পলাশের। আমি পরিচালক রশিদ পলাশের ‘নাইওর’ ছবি করেছিলাম। সেদিন (১২ তারিখ) পরিচালক রশিদ পলাশের জন্মদিন ছিল। আমাকে সেখানে ইনভাইট করেছিলেন তিনি। আমি সেখানে গিয়েছিলাম। সেখান থেকেই পলাশের (বিমান ছিনতাইচেষ্টাকারী) সঙ্গে আমার পরিচয় হয়।

সিমলা বলেন, এরপর ২০১৮ সালের ৩ মার্চ আমরা বিয়ে করি। ওই বছরেরই নভেম্বরে আমাদের ডিভোর্স হয়েছে। পলাশকে ডিভোর্স দেয়ার তথ্য জানিয়ে নায়িকা সিমলা আরো বলেন, ডিভোর্স দেয়ার কারণ ছিল। মূল কারণ হচ্ছে- মানসিক সমস্যা।

তিনি বলেন, পেশা হিসেবে আমি যেটা জানতাম-জানি সেটা হলো পরিচালক রশিদের ‘কবর’ ছবিতে প্রযোজক হিসেবে ছিলেন পলাশ (বিমান ছিনতাইচেষ্টাকারী)। আমি তাকে (পলাশ) একজন প্রযোজক হিসেবেই চিনি।

সিমলা বলেন, আমি ঘটনার (বিমান ছিনতাইচেষ্টা) সবই শুনেছি। আমার এখন কী করা উচিত। যেহেতু উনাকে (পলাশ) আমি ডিভোর্স দিয়ে ফেলেছি। আমাদের ডিভোর্স হয়েছে চার মাস চলছে। গতবছরের নভেম্বর মাসের ৬ তারিখে ডিভোর্স হয় আমাদের। এখন আমার কী করণীয় আছে।

তিনি বলেন, তবুও একটা কথা থাকে এখানে। যেহেতু এত বড় একটা ঘটনা ঘটেছে। করেছে দুঃসাহসিক একটা ঘটনা উনি (পলাশ) এবনরমালেই করেছেন। যেটাই করেন না কেন এটা তো শুভনীয় নয়। এটা তো দেশের জন্য শুভনীয় নয়। এটা আমার দেশের জন্য অত্যন্ত দুঃখজনক এবং লজ্জাজনক। সেখানে যদি আমার দেশের স্বার্থের জন্য কোথাও ফেইস হতে হয়, কোনো প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়, নো প্রোবলেম। আমি রেডি, নো প্রোবলেম।

২৪ ফেব্রুয়ারি বিকেলে দুবাইয়ের উদ্দেশে ক্রুসহ ১৪৮ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বাংলাদেশ বিমানের একটি উড়োজাহাজ উড্ডয়ন করে। উড্ডয়নের কিছুক্ষণ পরই ছিনতাইয়ের কবলে পড়ে বিমানটি।

বিমানের চট্টগ্রামগামী ফ্লাইটটি যখন মাঝ আকাশে, তখন এক ব্যক্তি পাইলটকে অস্ত্র ঠেকিয়ে উড়োজাহাজটি জিম্মি করেন। অবস্থা বেগতিক দেখে চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমানের জরুরি অবতরণ করা হয়। জরুরি অবতরণের পরপরই রানওয়েতে বিমানটি ঘিরে ফেলে সেনাবাহিনী, র‌্যাব ও পুলিশ।

এদিকে শানাইয়ের হুবু স্বামী সাবেক মন্ত্রী তথ্য জানালেও মিডিয়ার তোপের মুখে পরে শানাই। সানাই জানান, তার আগে একটা বিয়ে হয়েছিল। সেই পরিবারে তার তিন সন্তান আছে। যদিও স্ত্রীর সঙ্গে কয়েক বছর আগে ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে। তবুও একটা ঝোড়ো পরিবেশের মধ্যে আছি, এসব কারণেই এখন বলতে চাইনা।

এর আগে সানাই মাহবুব সুপ্রভা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপত্তিকর ভিডিও ছাড়ানোয় আটক আটক করে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিট। পরে অঙ্গীকারনামায় মুচলেকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেন পুলিশ।

সেখানে শানাই বলেছেন ‘আমার কিছু সিদ্ধান্তে ভুল ছিল। যে জিনিসগুলো বুঝতে পারিনি। সাইবার ক্রাইম ইউনিট খুব সুন্দর করে আমাকে বুঝিয়ে বলেছে। ফেসুবক পেজে একটি স্ট্যাটাস এসব কথা বলেছেন অভিনেত্রী সানাই মাহবুব সুপ্রভা।এর আগে রোববার রাতে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিটের সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগকে ধন্যবাদ দিয়ে ফেসুবক পেজে একটি স্ট্যাটাস দেন অভিনেত্রী সানাই মাহবুব সুপ্রভা।

স্ট্যাটাসটিতে সানাই আরও লিখেন- একজন বাংলাদেশি নাগরিক হিসেবে আমি দেশের সমস্ত আইনকে গভীরভাবে শ্রদ্ধা ও সম্মান করি। আমি মনে করি, এদেশ যেমন আমার, আমিও এদেশেরই… ভুল ভ্রান্তির বাইরে আমরা কেউ না, হতে পারি আমরা তারকা কিংবা শিল্পী, ভুলের ঊর্ধ্বে কেউই না আমরা…