মালয়েশিয়া থেকে রাতে দেশে ফিরছে ৫ প্রবাসী বাংলাদেশীর লাশ

সব প্রক্রিয়া শেষ করে মালয়েশিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচ বাংলাদেশির লাশ শুক্রবার রাতে আসছে। মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের (এমএইচ) ১৯৬ ফ্লাইটে করে তাদের লাশ পাঠানো হচ্ছে। এ পাঁচজনের লাশ বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে পৌঁছবে। লাশের সঙ্গে কিয়াস এইচডি এন বিএইচডি কোম্পানির পক্ষ থেকে ৪ জন কর্মকর্তাও যাচ্ছেন বলে বাংলাদেশ দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে।

নিহত পাঁচজনের মধ্যে ২ জন চাঁদপুর, ২ জন কুমিল্লা ও ১ জন নোয়াখালীর বাসিন্দা। তারা হলেন, চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানার দেবপুর ৪নং ওয়ার্ডের মো. আনোয়ারের ছেলে সোহেল (২৪), চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ থানার চরভাগল ৩নং ওয়ার্ডের মো. আমির হোসেনের ছেলে আলামিন (২৫), কুমিল্লা জেলার লাকসাম থানার দুরলবপুর গ্রামের তাজুল ইসলামের ছেলে মহিন (৩৭), কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানার হাসানপুর কলেজ পাড়ার ঢাকাগাঁও গ্রামের মো. ইউনুস মুন্সির ছেলে মো. রাজিব মুন্সি (২৭) ও নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানার নোয়াখোলা ২নং ওয়ার্ডের নুর মোহাম্মদের ছেলে গোলাম মোস্তফা।

এ দিকে সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতদের ক্ষতিপূরণ আদায়ে দূতাবাস সচেষ্ট রয়েছে বলে জানিয়েছেন শ্রম কাউন্সিলর মো. জহিরুল ইসলাম। প্রসঙ্গত গত রোববার রাত ১১টায় দেশটির কে এল ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টের এমএএস কার্গো, জালান এস-৮ পেকেলিলিংয়ের পাশে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে ঘটনাস্থলেই বাংলাদেশিসহ ৯ জন নিহত হন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাসচালকসহ মারা যান আরও দুজন। বাসটি শ্রমিকদের নিয়ে নীলাই, নেগরি সেম্বিলান থেকে এয়ারপোর্ট অভিমুখে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। হতাহতদের মধ্যে নেপাল, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার নাগরিকও ছিলেন।