২৫ এপ্রিল খালেদা জিয়ার লন্ডনে ফ্লাইট?

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কি আসলেই যুক্তরাজ্যে চলে যাচ্ছেন? অনুমিত হচ্ছে সরকার ও বিএনপির মধ্যে এ ব্যাপারে কোনো সমঝোতা হচ্ছে। রাজনৈতিক অঙ্গনে খালেদা জিয়ার প্যারোল নিয়ে হঠাৎ করে এ বিষয়ে ব্যাপক আলোচনা হচ্ছে। ডেইলি স্টার বিএনপির শীর্ষ নেতা ও ক্ষমতাসীল আওয়ামী লীগের নেতারা ব্যাক্তিগতভাবে খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তিলাভ নিয়ে আলোচনা করছেন বলে জানা গেছে। ৭৪ বছর বয়স্কা খালেদা জিয়াকে প্যারোলে মুক্তি নিয়ে চিকিৎসার্থে বিদেশে যাচ্ছেন বলে জোর গুজব রয়েছে।

সূত্র মতে, সমঝোতার ভিত্তিতে চলতি মাসেই ১৪ মাস ধরে দুর্নীতি মামলায় কারাগারে আটক খালেদা জিয়া লন্ডনগামী ফ্লাইটে উঠতে পারেন। ৩০ ডিসেম্বরের গত নির্বাচনে বিএনপির ৬ নেতা বিজয়ী হলেও এখনো শপথ নেননি। সোমবার রাতে বিএনপির এক নেতা বলেন, একজন বিদেশে যাবেন আর ৬ জন সংসদে ঢুকবেন।

বিএনপির এক নেতা বলেন, খালেদা জিয়ার লন্ডনে যাওয়ার ফ্লাইট হয় ২৫ অথবা ২৬ এপ্রিল এবং তার বিদেশে যাওয়ার এক দিনের মাথায় বিএনপি নেতারা শপথ নিতে পারেন। বিএনপি নেতাদের শপথ নেয়ার শেষ সুযোগ ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত। ডেইলি স্টার এ ব্যাপারে বিএনপি নেতাদের জিজ্ঞেস করলে তারা জানান, এমন কিছু ঘটছে না।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এ ধরনের খবরের কোনো ভিত্তি নেই। এ সবই গুজব, আমি প্যারোলের ব্যাপারে কিছু জানি না। তিনি বলেন, প্যারোলের ব্যাপারে বেগম জিয়ার সাথে আমার কোনো কথা হয়নি। আর বিষয়টি আমাদের দলের ইস্যুও নয়। সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম জিয়াকে গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি জেলে নেয়া হয়। বর্তমানে খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সম্পতি তাকে পুরনো ঢাকার জেল থেকে এখানে স্থানান্তর করা হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির এক নেতা বলেন, তাদের দলের একজন শীর্ষ নেতা ক্ষমতাসীন দলের এক উপদেষ্টার সাথে খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি ও চিকিৎসার ব্যাপারে আলোচনা করেছেন। বিএনপির ঐ নেতা বলেন, তাদের দলের ৬ নেতা শপথ নিয়ে সংসদে গেলেই প্যারোলে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়া হবে বলে সমঝোতা হয়েছে।