জীবনে এমন ব্যাটিং দেখিনি: রোডস

বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে লিষ্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন সৌম্য সরকার। শুধু লিষ্ট ‘এ’ নয়, বাংলাদেশের ইতিহাসে ৫০ ওভারের ক্রিকেটে কোন বাংলাদেশি হিসেবে এটাই প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি। সব রেকর্ড চুরমার করে দিয়েছেন সৌম্য সরকার।
মহাগুরুত্বপূর্ন ম্যাচে এসে ইতিহাস গড়া এক ইনিংসই খেললেন তিনি। আর তার ইতিহাস গড়া ইনিংসে ভর করে শিরোপা জিতে নিয়েছে সৌম্য সরকার। এই ডাবল সেঞ্চুরি করার পথে সৌম্য সরকার ছক্কা মারেন ১৬টি যা লিষ্ট এ ক্রিকেটে রেকর্ড। এক ম্যাচে কোন ব্যাটসম্যানই আর এত গুলো ছক্কা মারতে পারেনি বাংলাদেশের ঘরোয়া লিগে। নিজে অপরাজিত থাকেন ১৫৩ বলে ২০৮ রান করে।

সৌম্যর এমন ব্যাটিংয়ের দিনে বসে নেই জহুরুল ইসলাম। তিনিও সৌম্যের সঙ্গে ওপেনিং জুটিতে নেমে সেঞ্চুরি করেন। জহুরুল ১২৮ বলে ১০০ রান করে জয় থেকে মাত্র ৬ রান দূরে থাকতে আউট হন। এই দুই তারকার ব্যাটে শেখ জামালের দেয়া ৩১৮ রানের টার্গেট ৪৭.১ ওভারেই টপকে যায় আবহানী।

এদিকে, বাংলাদেশের লিস্ট ‘এ’ ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের জুটি গড়েছেন আবাহনী লিমিটেডের দুই ওপেনার সৌম্য সরকার এবং জহুরুল ইসলাম অমি। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসরের শেষ ম্যাচে শেখ জামালের বিপক্ষে রেকর্ড গড়েন তারা। উদ্বোধনী জুটিতে ইনিংসের ৪৫.৪ ওভার পর্যন্ত ব্যাটিং করে ৩১২ রান সংগ্রহ করেছেন এই ওপেনার। ক্রিকেটে যে কোন উইকেটে তিনশ রান ছাড়ানো একমাত্র জুটি ছিল এটি।

এর আগে সর্বোচ্চ জুটি ছিল মাহবুবুল করিম ও ধীমান ঘোষের মধ্যে। ২০০৭ সালে চট্টগ্রাম বিভাগের হয়ে তৃতীয় উইকেটে ২৯০ রান তুলেছিলেন এই দুই ব্যাটসম্যান। আর সৌম্য-জহিরুলের এই জুটিকে নিজের দেখা সবচেয়ে দীর্ঘতম ওপেনিং পার্টনারশিপ বলে দেখছেন বাংলাদেশের প্রধান কোচ স্টিভ রোডস। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের যত খেলা দেখেছি আমি এটাই ছিল সবথেকে ভালো এবং দীর্ঘতম ওপেনিং পার্টনারশিপ।’